About Us

ফানুস নেটওর্য়াক আহমরি তেমন কিছু নয়। আমরা জগতের কিছু মানুষ আছি যারা স্টার জলসা, স্টার প্লাস, জি-বাংলা দেখতে মোটেই পছন্দ করি না। সারাদিন অফিস করে এসে কোথায় একটু সাকিব আল হাসানের ছক্কা-চার দেখব, মেসির ডিলিং-ড্রাবলিং দেখব, নেইমারের গোল করা দেখব, তা থুয়ে গিন্নির সাথে বসতে হয় স্টার জলসা দেখতে। সোনা-মধু, পিতলা-ঘুঘু, শালিক, টুনটুনি চৌদ্দগুষ্টির কত কিছু বলে ডাকি টিভির রিমোর্টটা পাওয়ার জন্য, তাতেও কাজ হয় না। এদিকে গিন্নির সাথে রাগারাগি করে রিমোর্ট নিলে রাতে অন্ন নিবারণের জন্য রাত ২ টায় মুড়ির ঠোঙ্গাটা খুজতে হয়। আহারে জীবন.... আহা জীবন।

একদিন অফিসে এসে পাশের রুমের কলিগকে বললাম খেলা দেখতে না পারার দুঃখের কথাগুলো। তার কাছ থেকে শুনলাম আরো ভয়াবহ কিছু। কয়েকদিন আগে নাকি তার গিন্নি সাথে রির্মোট নিয়ে ঝগড়া হয়। গন্ডগোলের একপর্যায়ে তার গিন্নি রাগের চোটে কলিগের মাথায় রির্মোট দিয়ে বসিয়ে দেয় এক বাড়ি। শেষে নাকি শীতের মধ্যে মাথায় বরফ দেওয়া লাগছে। লোকটা অবশ্য পরদিন পেটের ব্যাথা বলে ছুটি নিয়েছিল। আসল ঘটনা তাহলে পেট নয়, মাথার ব্যাথা। ঐদিন বাসায় এসে বারান্দার ফুলের টব, ভাঙ্গা চেয়ারের পায়া, জুতার র‌্যাক সবকিছু সরায় রাখছি। বলা তো যায় না, কোনদিন কোনটার সদ্বব্যবহার করে বসে। রাতে ভয়ের চোটে ঘুমাতে পারি নাই পর্যন্ত। ঔদিনিই সর্বপ্রথম এই অনলাইন টিভি বানানোর চিন্তা মাথায় আসল।

শুয়ে ছিলাম। হঠাৎ দেখলাম পাশের বাসার ভাবি আর ভাই মনের সুখে সাদের উপর ফানুসে আগুন ধরাচ্ছে। তাদের ম্যারেজডে ছিল। অতপর দুজন একসাথে ফানুস টা ছেড়ে দিল। ফানুশটা আস্তে আস্তে আকাশে উঠে গেল। তারা অনেকক্ষণ ধরে তাকি তাকিয়ে দেখল। গল্প করল। তারপর সাদ থেকে চলে গেল। ঔই ফানুস উড়ানো দেখেই আমার প্রজেক্টের নাম দিলাম “প্রজেক্ট ফানুস”। এই ছিল ফানুস নেটওয়ার্কে শুরুর গল্প। দিন যায়, রাত যায় প্রজেক্ট ফানুসের উন্নয়ন করতে। বউয়ের সাথে এখন আর রির্মোট নিয়া কাড়াকাড়ি করি না দেখে পাশের বাড়ির ভাবির কাছে আমার সেই সুনাম করে এসেছে। আমি নাকি দেশের সেরা বর।

বউ তো আর জানে না আমি এদিকে ফানুস বানাচ্ছি। অবশেষে ফানুসের কাজ শেষ হল। বউএর সাথে এখন টিভি দেখতে বসি। টেবিলের উপর মোবাইলে ফানুস ওপেন করে রাখি। ব্যাস, বউ জলসা দেখতে ব্যস্ত, আর আমি খেলা দেখতে। কলিগরে যেদিন ফানুসের লিংক দিছিলাম, আমারে চিকেন নাগেট খাওয়াছিল। বুঝলাম আমি তার কষ্টের কিছুটা সমব্যথি হতে পেরেছি। এভাবেই ফানুস নেটওর্য়াকের পথচলা শুরু। চেষ্টা করছি অল্প সময়ে আরো ডেভেলপ করতে। সাইট চালাতে অনেক লোকবলের প্রয়োজন। আমার তেমন বিশেষ সামর্থ্য নেই যে অনেক টাকা ঢেলে বিশাল ব্রান্ডিং করে সাইটে স্পনরশীপ আনব। আর সেটার প্রয়োজনও নেই। সাইটা কপালপোড়াদের জন্য বানিয়েছি, কপালপোড়াদেরই থাকবে। তারপরেও যদি কেউ চান, ফ্রিতে একটু উপকার করবে তাহলে আপনার মত আরেক হতভাগাকে লিংকটা শেয়ার দিয়েন। হয়ত আরেকটি টিভির রির্মোট অপব্যবহার থেকে সে নিস্তার পেতে পারে।

চেষ্টা করব দ্রুত সবকিছু আপডেট করার। কিন্তু ৩-৪ জন মানুষ আমরা ফ্রিতে খেটে চলেছি সাইটটাকে আপডেট করার। যদি কেউ চান, সাইটের সাথে যুক্ত হয়ে কিছু হতভাগার করবেন তাহলে কন্টাক ফর্মে আপনার তথ্য দিয়েন। আমরা যোগাযোগ করব। আরেকটি কথা, যেসব আপুরা এই স্টার পরিবারের বাইরে খেলাধুলা, মুভিজ পছন্দ করেন, তাদেরকে অনেক অভিনন্দন জানাচ্ছি। যদি পারেন আপনার নাম ঠিকানা আমাদের ফেসবুক পেইজে দিবেন। আমাদের অনেক টাকা নেই কিন্তু মানুষিকতা আছে। আপনাদের সম্মানার্থে হয়ত আমরা কনসার্ট আয়োজন করতে পারব না কিন্তু আপনার ঠিকানায় আমাদের তরফ থেকে একটা শুভেচ্ছা কার্ড পাঠানোর আশা করছি। মুলত আপনারাই শ্রেষ্ঠ মা, মেয়ে এবং জাতি। ফানুস নেটওর্য়াকের পক্ষ থেকে এই মা-জাতির জন্য থাকল বিনম্র শ্রদ্ধা এবং ভালবাসা।